চুয়েটে সরস্বতী পূজা পালিত


চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এ সনাতন ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্যোগে বিদ্যা দেবীর পূজা যথাযথ মর্যাদায় ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে উদযাপিত হয়েছে। মায়ের পূজা শেষে ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকম-লী সকলে মিলে ভক্তি শ্রদ্ধা সহকারে মায়ের অঞ্জলি গ্রহণ করেন। সরস্বতী পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে ‘ধর্ম ও দর্শন’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় সাগরময় ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়েটের মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। সভায় মুখ্য আলোচক ছিলেন রামকৃষ্ণ মঠ ও রামকৃষ্ণ মিশনের স্বামী পূর্ণব্রতানন্দ মহারাজ, বিশেষ আলোচক ছিলেন প্রফেসর ড. রনজিৎ কুমার সুত্রধর, প্রফেসর ড. সজল চন্দ্র বনিক, প্রফেসর ড. সুদীপ কুমার পাল, প্রফেসর ড. উজ্জ্বল কুমার দেব ও বাবু সুকোমল বিকাশ শীল।

সভায় আলোচকরা বলেন, মা সরস্বতী হলেন জ্ঞান, বিদ্যা, সংস্কৃতি ও শুদ্ধতার দেবী। দেশ ও জাতির উন্নয়নে শিক্ষার বিকল্প নেই। যে জাতি যত বেশি শিক্ষিত সে জাতি তত বেশি উন্নত। সনাতন ধর্মে শিক্ষাকে উঁচু স্তরে আসীন করা হয়েছে। এ ধর্মে প্রাচীন ঋষিরা ব্রহ্মের অনন্ত শক্তির অংশকে একেকজন দেব-দেবীরূপে কল্পনা করেছেন। আর তেমনিভাবে ব্রহ্মের যে শক্তি আমাদের বিদ্যা শিক্ষাদান করেন তাকে সরস্বতী দেবী নামে পূজা-অর্চনা করা হয়। সরস্বতী দেবীর পদধর্মিতা, হংসধর্মিতা, বীণাধর্মিতা, জ্ঞানধর্মিতা জীবনে অনুশীলন করলে জীবন হয় সার্থক ও সুন্দর।

No comments

Powered by Blogger.