অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী শ্যামল কান্তি বিশ্বাস ছিলেন একজন আদর্শবান ও প্রকৃত শিক্ষক


চুয়েটের প্রাক্তন উপাচার্য প্রয়াত অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী শ্যামল কান্তি বিশ্বাস’র স্মরণে শোক সভায় সভাপতির বক্তব্য রাখছেন আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল আলম।

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় (চুয়েট)’র প্রাক্তন উপাচার্য এবং বরেণ্য শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী শ্যামল কান্তি বিশ^াস গত ০১ ডিসেম্বর, ২০১৯ইংরেজী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পরলোক গমণ করেন। তাঁর স্মরণে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উদ্যোগে গত ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ কেন্দ্রের সেমিনার কক্ষে এক শোক সভার আয়োজন করা হয়। আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল আলম’র সভাপতিত্বে এবং সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত শোক সভার শুরুতে প্রয়াত অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী শ্যামল কান্তি বিশ^াসের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করা হয়। বক্তারা বলেন, অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী শ্যামল কান্তি বিশ^াস সত্যিকার অর্থে একজন ছাত্রবান্ধব শিক্ষক ছিলেন। তাঁর ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে তাঁর আচরণ ছিল অতুলনীয়। একজন প্রকৌশলী তাঁর বক্তব্যে বলেন, চুয়েটে রাজনৈতিক দলাদলি ও প্রতিকুল পরিস্থিতির কারণে তিনি একসময় লেখা পড়া বন্ধ করে দিলেও পরবর্তীতে শ্যামল স্যারের উৎসাহে পুনরায় ইঞ্জিনিয়ারিং পড়া শুরু করে প্রকৌশলে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করতে সক্ষম হন। বক্তারা বলেন, আজ তথ্য প্রযুক্তি ও প্রকৌশল শিক্ষার যে উন্নয়ন এবং প্রসার ঘটেছে তা প্রায় তিনযুগ আগে তিনি তাঁর পূর্বাভাস দিয়েছিলেন। বক্তারা আরো বলেন, বরেণ্য শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী শ্যামল কান্তি বিশ^াস ছাত্র-শিক্ষক এবং চুয়েটের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে যে অমায়িক ও মধুর আচরণ করতেন তা ভুলার মত নয় বলে উল্লেখ করেন। অধ্যাপক প্রকৌশলী শ্যামল কান্তি বিশ^াস মনে প্রাণে একজন আদর্শবান ও প্রকৃত শিক্ষকের মডেল হিসেবে সকলের নিকট শ্রদ্ধা ও সম্মানের পাত্র ছিলেন। শোক সভায় স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রের ভাইস-চেয়ারম্যান (একা. এন্ড এইচআরডি) প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন। বরেণ্য শিক্ষাবিদের জীবন এবং তাঁর বিজ্ঞানমস্ক দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কে আলোচনায় অন্যান্যদের মাঝে অংশগ্রহণ করেন কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী জ.স.ম বখতেয়ার, প্রকৌশলী এম. আলী আশরাফ, পিইঞ্জ., প্রকৌশলী মোহাম্মদ হারুন, প্রকৌশলী মনজারে খোরশেদ আলম, প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদদ চৌধুরী, প্রাক্তন ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এ. এস. এম. নাসিরুদ্দিন চৌধুরী, পিইঞ্জ., প্রকৌশলী এম. এ. রশীদ, প্রকৌশলী উদয় শেখর দত্ত, কাউন্সিল সদস্য প্রকৌশলী এস. এম. শহিদুল আলম, প্রবীণ প্রকৌশলী নগর পরিকল্পনাবিদ প্রকৌশলী সুভাষ চন্দ্র বড়ুয়া ও প্রকৌশলী খোরশেদ উদ্দিন বাদল প্রমুখ।

No comments

Powered by Blogger.