বর্তমান সরকার প্রতিটি ক্ষেত্রে আশাব্যাঞ্জক সাফল্য অর্জন করেছে - ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া

আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া

আর্থ সামাজিক সূচকসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে আশাব্যাঞ্জক সাফল্য অর্জন বতমান করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। দেশের মাথাপিছিু আয় বৃদ্ধি এবং প্রকৌশলীদের সহায়তায পদ্মা ব্রিজসহ মেগা প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের কাজ অব্যাহতভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। গত রোববার (২১ জুলাই ২০১৯) ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), চট্টগ্রাম কেন্দ্রের প্রকৌশলী সন্তানদের মধ্যে যারা পিইসি, জেএসসি, এস.এস.সি ও এইচএসসি এবং সমমান পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান ও অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা-২০১৯ এর বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া একথা বলেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ জাতিসংঘের এমডিজি সফলভাবে সম্পন্ন করে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছে এবং দেশকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত করেছে এবং দেশকে উন্নত দেশে উন্নীত করতে সকল শ্রেণির পেশার মানুষকে অন্তর্ভুক্ত করে বিভিন্ন উন্নয়ন পরিকল্পনা ইতিমধ্যে প্রণয়ন করেছে। ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া বলেন, দেশকে উন্নত দেশে রূপান্তর করতে দেশের মেধাবী সন্তান প্রকৌশলীদের মেধা ও মননকে কাজে লাগিয়ে স্ব স্ব অবস্থান থেকে অবদান রাখার জন্য প্রকৌশলীদের প্রতি আহ্বান জানান। প্রধান অতিথির বক্তব্যে আরো বলেন, আজকে যারা বিভিন্ন পরীক্ষায় কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন তাদেরকে যথাযথভাবে পরিচর্চা করে সুনাগরিক এবং দেশের সম্পদ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান।  প্রধান অতিথি আরো বলেন, বর্তমান সরকার দেশের উন্নতি ও সমৃদ্ধির লক্ষে আগামী একশ বছরের জন্য ডেল্টাপ্লান প্রণয়ন করেছে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিবর্গের মতামতের ভিত্তিতে। ডেল্টাপ্ল্যানও ধীরে ধীরে বর্তমান সরকার বাস্তবায়ন করবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রশ্নে কোনো আপোষ নেই। ৭৫ এর ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর স্বাধীনতা বিরোধীদের প্রতিষ্ঠিত করে দেশকে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল আলম এর সভাপতিত্বে এবং কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এ বছর চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন কর্তৃক শিক্ষায় অবদানের জন্য একুশে স্মারক সম্মাননা পদক-২০১৯ ভুষিত সাদার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ও আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অধ্যাপক প্রকৌশলী এম. আলী আশরাফ, পিইঞ্জ। চসিক কর্তৃক একুশে স্মারক সম্মাননা পদক প্রাপ্তিতে অধ্যাপক প্রকৌশলী এম. আলী আশরাফ, পিইঞ্জ-কে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে বিভিন্ন পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত প্রায় পঞ্চাশজন কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদপত্র ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এছাড়াও অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা-২০১৯ এ বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া। সভায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রের ভাইস-চেয়ারম্যান (এক. এন্ড এইচআরডি) প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন, ইআরসি’র নির্বাহী ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী রাজীব বড়–য়া। কৃতি শিক্ষার্থীদের পক্ষে অনুভুতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন কিশোয়ার তাহিয়া মজুমদার আভা।

No comments

Powered by Blogger.