পেশাভিত্তিক জ্ঞান অর্জনে প্রশিক্ষনের গুরুত্ব অপরিসীম - প্রকৌশলী এম. আলী আশরাফ

আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র আয়োজিত নবীন প্রকৌশলীদের জন্য সপ্তাহব্যাপী প্রশিক্ষন কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন সাদার্ন বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ’র উপ-উপাচার্য অধ্যাপক প্রকৌশলী এম. আলী আশরাফ, প্ঞ্জি.,।

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি), চট্টগ্রাম কেন্দ্রের উদ্যোগে গত ০১ অক্টোবর, ২০১৮ সোমবার সন্ধ্যা ৬:৩০টায় কেন্দ্রের সেমিনার কক্ষে আইইবি’র স্বীকৃত বিভিন্ন প্রকৌশল  ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হতে সদ্য পাশকৃত নবীন ¯œাতক প্রকৌশলীদের কর্মজীবনের শুরুতে পেশাগত মানোন্নয়ন ও দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে দক্ষ পেশাজীবি ও ব্যবস্থাপক গড়ে তোলার লক্ষে সপ্তাহব্যাপী Management Training For Fresh Engineers শীর্ষক বুনিয়াদি প্রশিক্ষনের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাদার্ন বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ’র উপ-উপাচার্য ও কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অধ্যাপক প্রকৌশলী এম. আলী আশরাফ, পিইঞ্জ.। কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল আলম’র সভাপতিত্বে এবং কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রের ভাইস-চেয়ারম্যান (একা. এন্ড এইচআরডি) প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন ও ভাইস-চেয়ারম্যান (এডমিন. প্রফেশ. এন্ড এসডব্লিউ) প্রকৌশলী প্রবীর কুমার দে এবং কোর্স কো-অর্ডিনেটর ড. প্রকৌশলী মোঃ মোজাম্মেল হক প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক প্রকৌশলী এম. আলী আশরাফ, পিইঞ্জ. বলেন, দক্ষ মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনায় প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি কর্মজীবনে প্রবেশের পূর্বে ও উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি, পেশাদারিত্ব, সামাজিক ও বাস্তবভিত্তিক জ্ঞান অর্জনের লক্ষে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি সকল নবীন প্রকৌশলীদের চাকুরী প্রার্থী না হয়ে উদ্যোক্তা ও চাকুরী দাতা হওয়ার লক্ষে নিজেদের প্রস্তুত করার আহ্বান জানান। তিনি সকল প্রকৌশলীকে শুধুমাত্র দেশের নাগরিক না হয়ে বিশ্ব নাগরিক হিসেবেও প্রতিযোগিতাপূর্ণ কর্মক্ষেত্রে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে যোগ্য হিসেবে গড়ে তোলা উচিৎ বলে মন্তব্য করেন। এছাড়াও তিনি বলেন, দেশীয় বিভিন্ন শিল্প কল-কারখানায় বহু বিদেশী প্রকৌশলী উচ্চ পদে আসীন রয়েছে। এক্ষেত্রে নিজেদের যোগ্য, বাস্তবভিত্তিক জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে দক্ষ প্রকৌশলী ও ব্যবস্থাপক হিসেবে গড়ে উঠতে সক্ষম হলে বিদেশী প্রকৌশলীদের ওপর নির্ভর করতে হবেনা। তিনি কর্মক্ষেত্রসহ সকল কর্মসূচিতে যথা সময়ের উপস্থিতির বিষয়ে নিষ্ঠাবান হওয়ার পরামর্শ দেন। তিনি প্রতিটি ক্ষেত্রে ধৈয্যের সাথে সকল প্রতিকুল পরিস্থিতি মোকাবেলা করে নিজের লক্ষে পৌঁছে দেশ ও জাতি গঠনে নিজেকে নিয়োজিত করার আহবান জানান এবং সামাজিক দায়বদ্ধতার বিষয়টি স্মরণ রেখে নিয়মিতভাবে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি চলমান রাখার জন্য আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী রফিকুল আলম বলেন, প্রকৌশলী সমাজের পেশাগত মানোন্নয়ন, দক্ষতা বৃদ্ধি করে দক্ষ মানব সম্পদ সৃষ্টি করা আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের প্রধান কাজ। তিনি বলেন, প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ও পেশা ভিত্তিক শিক্ষা এক নয়। তিনি প্রত্যেককে পরিকল্পনামাফিক ও বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সময়োপযোগী ও বাস্তবভিত্তিক জ্ঞান অর্জন করে নিজের ক্যারিয়ার গড়ে দেশ তথা বর্হিবিশ্বে নিজ নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখতে নিজেদের তৈরী করা এবং বিভিন্ন প্রকৌশল ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে গবেষণা করে প্রযুক্তি রপ্তানীকারক হওয়ার লক্ষে তরুণ ও নবীন প্রকৌশলীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি আরো বলেন, দেশে বর্তমান সরকার কর্তৃক গৃহিত বিভিন্ন মেগা প্রকল্প কর্নফুলী টানেল নির্মানসহ প্রায় ১০০টি অর্থনৈতিক জোনে বিশাল কর্মসংস্থান  সৃষ্টি হবে এবং বেকারত্বের হার অনেকাংশে কমে যাবে। এ সমস্ত প্রকল্পে দক্ষতার সাথে কাজ করার লক্ষে নিজেদের প্রস্তুত করা গেলে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নয়নশীল দেশ হতে দেশকে উন্নত দেশে পরিণত করা মোটেই অসম্ভব নয় বলে উল্লেখ করেন। এই সমস্ত কাজে প্রকৌশলী সমাজকে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। 

আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের আয়োজনে সপ্তাহব্যাপী নবীন প্রকৌশলীদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কর্মসূচির সমন্বয়কারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সাদার্ন বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ’র রেজিস্ট্রার ড. প্রকৌশলী মোঃ মোজাম্মেল হক, পিইঞ্জ.,। সপ্তাহব্যাপী প্রশিক্ষন কর্মসূচিতে প্রতিদিন দুইটি সেশনে সন্ধ্যা ৭:০০টা হতে রাত ৯:৩০টা পর্যন্ত কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। সপ্তাহব্যাপী প্রশিক্ষন কোর্সে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, সাদার্ন বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ, চিটাগাং ইনডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির অভিজ্ঞ শিক্ষক মন্ডলী এবং সরকারী ও বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানে কর্মরত অভিজ্ঞতালব্ধ, পেশাদারী ব্যক্তিবর্গ ও প্রকৌশলীগণ রিসোর্স পার্সন হিসেবে প্রশিক্ষন প্রদান করবেন। সপ্তাহব্যাপী মৌলিক প্রশিক্ষন কোর্সে প্রায় ১৫০জন নবীন প্রকৌশলী অংশগ্রহণ করেন।



Powered by Blogger.