আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রে এএমআইই কোর্সের ৭৬ ও ৭৭তম ব্যাচের ওরিয়েন্টেশন ও উদ্বোধন

আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র কর্তৃক পরিচালিত এএমআইই ৭৬ ও ৭৭তম ব্যাচের ওরিয়েন্টেশন ও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ 

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) চট্টগ্রাম কেন্দ্র কর্তৃক পরিচালিত এএমআইই (বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং সমমান) কোর্সের ৭৬ ও ৭৭তম ব্যাচের ওরিয়েন্টেশন ও উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গত ২২ অক্টোবর, ২০১৮ সোমবার সন্ধ্যা ৭:০০টায় কেন্দ্রের সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল আলম এর সভাপতিত্বে এবং কেন্দ্রের স্থানীয় কাউন্সিল সদস্য ও সম্মানী সহকারী প্রকৌশলী এস এম শহিদুল আলম এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ। পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কেন্দ্রের ভাইস-চেয়ারম্যান (এডমিন. প্রফেশ. এন্ড এসডবিøউ) প্রকৌশলী প্রবীর কুমার দে এবং ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রের ভাইস-চেয়ারম্যান (একা. এন্ড এইচআরডি) প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন ও কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোহাম্মদ হারুন, এএমআইই পাঠক্রম পরিচালনা কমিটির আহŸায়ক ড. প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা, পিইঞ্জ., রিসোর্স পার্সনদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন প্রকৌশলী সুব্রত দাশ প্রমুখ। 

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, এএমআইই ডিগ্রী অত্যন্ত স্বল্প খরচে মানসম্মত সময় ও যুযোগপযোগী শিক্ষা। ভয়, দুশ্চিন্তা পরিহার করে নিজের প্রতি আস্থা রেখে আত্মবিশ্বাস, সাহসিকতা, একাগ্রতা ও মনোযোগের সাথে নিয়মিত লেখাপড়া করলে এএমআইই পাশ করা খুবই সহজ। তিনি অস্থির মানসিকতা, বিভিন্ন ক্ষতিকর আসক্তি পরিহার করে নিয়মিত অধ্যাবসায়ে মনোনিবেশ করে প্রকৃত বাস্তবভিত্তিক জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে এএমআইই ডিগ্রী অর্জন করে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনসহ নিজেকে যোগ্য ও দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত করার মাধ্যমে নিজের স্বপ্ন পূরণ করে দেশ ও জাতি গঠনে আত্মনিয়োগ করতে সকলের প্রতি আহŸান জানান। এছাড়াও তিনি বলেন, নিজের দেশে ভবিষ্যত গড়তে লক্ষ স্থির করা, স্বপ্ন দেখা, স্বপ্নও বাস্তবায়নে এগিয়ে যেতে কঠিন মনোবলের সাথে সকল বাধা বিপত্তি অতিক্রম করার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। প্রধান অতিথি আরো বলেন, এএমআইই কোর্স বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত ও সমাদৃত বলে দিন দিন এএমআইই কোর্সের প্রতি শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বাড়ছে এবং এএমআইই কোর্স সম্পন্ন করে বিশ্বের যেকোন প্রান্তে গ্রহণযোগ্যতা পাওয়ায় যায়। বক্তারা  বলেন, আইইবি কর্তৃক পরিচালিত এএমআইই কোর্স বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এর সমমান ডিগ্রী। দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত ও বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের আকাশচুম্বী খরচ মেটাতে অক্ষম ছাত্র-ছাত্রী অত্যন্ত স্বল্প খরচে এএমআইই ডিগ্রী অর্জনের সুযোগ পায়। বুয়েটের অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলীর তত্ত¡াবধানে পরিচালিত এবং চুয়েটের অভিজ্ঞ শিক্ষক ও পেশাদারী অভিজ্ঞ প্রকৌশলী কর্তৃক পাঠদানসহ বুয়েটের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের নিয়ন্ত্রনে এবং চুয়েটের মাধ্যমে পরীক্ষা সম্পন্ন হওয়ায় দেশের স্বনামধন্য পাবলিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়ের পরেই এএমআইই ডিগ্রী অর্জনকারীদের মূল্যায়ন করা হয়ে থাকে। এএমআইই সম্পন্ন করে বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণ, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এমএসসিসহ উচ্চতর ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ পায়। বক্তারা আরো বলেন, অনেক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকৌশলে ¯œাতক ডিগ্রী অর্জন করেও আইইবি’র সদস্য হতে পারে না। পক্ষান্তরে আইইবি পরিচালিত এএমআইই কোর্স সম্পন্ন করে অনায়াসে আইইবি’র সদস্য হওয়ার সুযোগ লাভ করা যায়।

কেন্দ্রের চেয়ারম্যান ও অনুষ্ঠানের সভাপতি বলেন, আমি পারি, পারব এই প্রত্যয় নিয়ে নিজের ভাগ্য ও সমাজ পরিবর্তনে সোচ্চার ভ‚মিকা রাখতে হবে। নিজেকে যোগ্য প্রতিষ্ঠিত করে দেশে বিভিন্ন শিল্প কলকারখানায় প্রকৌশলীর চাহিদা পূরণে অগ্রণী ভ‚মিকা রাখতে এগিয়ে আসার আহŸান জানান। এছাড়াও তিনি বলেন, দেশে বর্তমান সরকার কর্তৃক গৃহিত একশোটি অর্থনৈতিক জোন সফলভাবে চালু হলে প্রকৌশলীসহ অন্যান্য পেশার মানুষেরও কর্মসংস্থান হবে। তিনি আরো বলেন, তথ্য প্রযুক্তি ও বিশ্বায়নের এ যুগে প্রকৌশলীদের বর্ধিত চাহিদা পূরণে আপনাদের অংশ গ্রহণে পুরো মানবজাতি সমৃদ্ধ হবে। তিনি এএমআইই কোর্সের কোচিং ক্লাশে ছাত্র শিক্ষকের সুবিধার্থে আধুনিক শিক্ষা উপকরণ মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে পাঠদানের বিষয় উল্লেখ করে বলেন, বর্তমান প্রচলিত সিলেবাস মোতাবেক ও বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে পাঠদানে রিসোর্স পার্সনদের প্রতি আহŸান জানান। এছাড়াও ছাত্র-ছাত্রীদের দেশ-বিদেশের হালনাগাদ প্রকৌশল জ্ঞান অর্জনের সুবিধার্থে কেন্দ্রে ওয়াইফাই ইন্টারনেটও চালু করা হয়েছে। তিনি এএমআইই কোর্স সম্পর্কিত হালনাগাদ সংস্করণের বিভিন্ন বই সম্বলিত লাইব্রেরীতে নিয়মিত ও গ্রæপ স্টাডির মাধ্যমে জ্ঞান অর্জনের উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের চাহিদার প্রেক্ষিতে ও প্রয়োজনীয়তা বিবেচনা করে কেন্দ্রের ক্লাসরুম ও লাইব্রেরীসহ সকল সুবিধা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন। শিক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন জনাব রহমত আলী ও জাকির হোসেন। কেন্দ্রের পক্ষ থেক প্রধান অতিথিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। ওরিয়েন্টশন ও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান কাউন্সিল সদস্য ও সিনিয়র সদস্য, এএমআইই পাঠক্রম পরিচালনা কমিটির সদস্য ও রিসোর্স পার্সনসহ ৭৬ ও ৭৭তম ব্যাচের বিপুল সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত ছিল।



Powered by Blogger.