চুয়েটে ‘বার্ষিক কর্মক্ষমতা ব্যবস্থাপনা’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত



বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)-এর মাননীয় চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেছেন, “বাংলাদেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এক সময়কার পরাজিত শক্তি পাকিস্তানও এখন বাংলাদেশকে রোল মডেল মানে। তারাও এখন বাংলাদেশ হতে চায়। আমরা এখন আর উন্নয়নশীল দেশের রোল মডেল হতে চাই না। আমাদের উন্নত দেশের রোল মডেল হিসেবে নিজেদের মর্যাদা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সেজন্য আমাদের প্রত্যেকের নিজের দায়িত্বের প্রতি আরো সচেতন হতে হবে। বর্তমান সরকার কিছু ভিশন নির্ধারণ করেছে। আমরা নিজেরা যদি নিজেদের উপর অর্পিত দায়িত্ব সুষ্ঠুভাবে পালন করি তবে এসব ভিশন অটোমেটিক পূরণ হয়ে যাবে। তিনি অদ্য ১৪ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার), ২০১৮ খ্রিঃ সকালে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর যন্ত্রকৌশল বিভাগের সেমিনার কক্ষে আয়োজিত ‘বার্ষিক কর্মক্ষমতা ব্যবস্থাপনা : বাংলাদেশ প্রেক্ষিত (Annual Performance Management : Bangladesh Perspective) শীর্ষক দিনব্যাপী এক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

চুয়েটের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়েটের মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম, ইউজিসির সম্মানিত সচিব ড. মোঃ খালেদ এবং ইউজিসির বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা বিভাগের পরিচালক ড. মোঃ ফখরুল ইসলাম।

অধ্যাপক আবদুল মান্নান আরো বলেন, “বাংলাদেশে সম্পদের প্রাচুর্যতা নেই। তবে এদেশের জনগণের অর্ধেকের বেশি বয়সে তরুণ। যেটা একটা উন্নয়নশীল দেশের জন্য দারুণ সম্ভাবনা। পৃথিবীর খুব কম দেশেই এমন সম্পদ রয়েছে। তারাই পারে এই দেশকে সত্যিকার অর্থেই বদলে দিতে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চুয়েটের মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, বর্তমান সরকার বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের শিক্ষা ও গবেষণার মানোন্নয়নের লক্ষ্যে বার্ষিক কর্মক্ষমতা ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কর্মসম্পাদন চুক্তি করছে। চুয়েটও সে লক্ষ্যে আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য কিছু কৌশলপত্র তৈরি করেছে। আমরা চাই সরকারের উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে ভিশনসমূহ বাস্তবায়নে সক্রিয় ভূমিকা রাখতে। আমরা সে পথেই এগিয়ে যাচ্ছি।

এ সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসির প্রতিনিধি ছাড়াও চুয়েটের সম্মানিত শিক্ষকম-লী ও কর্মকতাগণ উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক ও প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মানবিক বিভাগের প্রভাষক নাহিদা সুলতানা। অনুষ্ঠানে চুয়েটের বিভিন্ন তথ্যচিত্র সম্বলিত একটি প্রামাণ্যচিত্র উপস্থাপন করেন সহকারী রেজিস্ট্রার (সমন্বয়) জনাব মোহাম্মদ ফজলুর রহমান। 





No comments

Powered by Blogger.