কুয়েটে ৩য় সমাবর্তন বুধবার, সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন


খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় সমাবর্তকে ঘিরে ক্যাম্পাস এখন গ্রাজুয়েটদের পদভারে মুখরিত। উচ্চ শিক্ষা সমাপ্তির পর সবচেয়ে কাঙ্খিত ক্ষণ সমাবর্তন, কয়েক ঘন্টা পরই দেখা মিলবে সেই ক্ষণের। মা-বাবা, স্বামী বা স্ত্রীকে নিয়েই অনেকে এসেছে এই ক্ষণটিকে স্মরণীয় করে রাখতে। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ০৪ এপ্রিল বুধবার বেলা ৩.০০টায় অনুষ্ঠিত হবে ৩য় সমাবর্তন ১৮। 

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করতে সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর জনাব মোঃ আবদুল হামিদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান, সমাবর্তন বক্তা বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক রশীদ চেয়ার প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আসগর, ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. কাজী হামিদুল বারী, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুর রফিক, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মিহির রঞ্জন হালদার ও রেজিস্ট্রার জি এম শহিদুল আলম। 

এছাড়া মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবৃন্দ, সংসদ সদস্যগণ, নির্বাচিত জন প্রতিনিধিগণ, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর, উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ, আমন্ত্রিত অতিথিগণ, রাজনৈতিক নের্তৃবৃন্দ, অভিভাবক ও গ্রাজুয়েটগণ, এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাগণ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন।

সমাবর্তনে সর্বমোট ২৭৯৫ জনকে ¯œাতক ও ২২৮ জনকে ¯œাতকোত্তর ডিগ্রী প্রদান করা হবে। এর মধ্যে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ২৬৫৭,  বিইউআরপি ১৩৮, এমএসসি ৬৯, এমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ১০৩, এমফিল ৪৮ এবং ০৮ জনকে পিএইচডি ডিগ্রীর সনদ প্রদান করা হবে। একই সাথে ¯œাতক পর্যায়ে ভালো ফলাফলের ভিত্তিতে ‘বিশ্ববিদ্যালয় স্বর্ণপদক’ দেয়া হবে ৩৮ জন কৃতি গ্রাজুয়েটকে। এদের মধ্যে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ১৮৩২, বিইউআরপি ৯১, বিএসসি ও এমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ১৭, এমএসসি ২৫, এমফিল ০৫ এবং পিএইচডি ০৭ জন সমাবর্তন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনের জন্য নিবন্ধন করছেন।

ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ৩য় সমাবর্তনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। এ উপলক্ষে গঠিত স্টিয়ারিং কমিটি এবং ২১টি উপ-কমিটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই তাদের দায়িত্ব সম্পন্ন করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আশা করছে ৩য় সমাবর্তন সকলের জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

No comments

Powered by Blogger.