বোরোধানে পোকামাকড় দমনে আলোক ফাঁদ ব্যবহার


খাদ্য উৎপাদনে উদ্বৃত্ত জেলা জয়পুরহাটে চলতি মৌসুমে চাষ করা বোরো ধানে পোকামাকড়ের উপস্থিতি নির্ণয় ও দমনের জন্য আলোক ফাঁদ ব্যবহার করছে কৃষকরা।

সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানায়, সদরের ৯টি ইউনিয়নের ৮১টি ব্লকে সহকারি কৃষি কর্মকর্তাদের তত্বাবধানে বোরো ধানে পোকামাকড়ের উপস্থিতি নির্ণয়ের জন্য ওই আলোক ফাঁদ ব্যবহার কার্যক্রম চলছে। এতে করে বোরো ধানে কি ধরনের পোকার আক্রমণ হয়েছে তা জানা যাবে আবার সেই পোকা দমনের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করা সম্ভব হবে। সদর উপজেলার হাড়াইল এলাকায় মঙ্গলবার রাতে আলোক ফাঁদ ব্যবহার বিষয়ক এক চাষি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সেরাজুল ইসলাম এতে প্রধান অতিথি ছিলেন। সেখানে চাষিদের বোরো ধানের জমিতে নিয়ে হাতে-কলমে আলোক ফাঁদের ব্যবহার শেখানো হয়। এ সময় কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা সহ সহকারি কৃষি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

কৃষি বিভাগ জানায়, চলতি মৌসুমে জেলায় ৭১ হাজার ৩৫৫ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করা হলেও ৭২ হাজার ১৫০ হেক্টর জমিতে এবার বোরো ধানের চাষ হয়েছে। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৭৯৫ হেক্টর বেশি। এতে প্রায় ৩ লাখ মে. টন চাল উৎপাদন হবে বলে আশা প্রকাশ করছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ। আবহাওয়া ভাল থাকলে এবারও বোরোর বাম্পার ফলন হবে এমনটি আশা প্রকাশ করেন কৃষিবিদ সেরাজুল ইসলাম।


(বাসস)

 

No comments

Powered by Blogger.