দূর্ঘটনায় নিহত কুয়েটের চার শিক্ষার্থীর আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা :: পরিবারের নিকট আর্থিক সাহায্যের চেক হস্তান্তর


মংমনসিংহের ভালুকায় বিস্ফোরণজনিত দূর্ঘটনায় নিহত খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৪র্থ বর্ষের ইন্ডস্ট্রিয়াল এ্যটাচ্্মেন্টরত চার শিক্ষার্থীর আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনায় দোয়া ও প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে প্রতি পরিবারের নিকট আর্থিক সাহায্যের চেক হস্তান্তর করা হয়।

গত ২৫ মার্চ ২০১৮ তারিখে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার মাষ্টার বাড়ি এলাকায় ভাড়া করা অস্থায়ী ভবনে এক ভয়াবহ গ্যাস বিস্ফোরণজনিত দূর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে ও পরবর্তীতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অত্যান্ত মেধাবী চার জন শিক্ষার্থী যথাক্রমে মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, মোঃ শাহীন মিয়া, মোঃ হাফিজুর রহমান ও দিপ্ত সরকার অকালে প্রাণ হারায়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে অকাল প্রয়াত প্রত্যেক ছাত্রদের পরিবারকে ২৫,০০,০০০/- (পঁচিশ লক্ষ) টাকা করে আর্থিক সাহায্য প্রদানের যে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে, তার অংশ হিসেবে প্রথম পর্যায়ে ০৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ১০,০০,০০০/- (দশ লক্ষ) টাকা পে অর্ডারের মাধ্যমে নিহতদের মাতা ও পরিবারের সদস্যদের নিকট সরাসরি হস্তান্তর করা হয়। 

এসময় নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল ও প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। পরিচালক (ছাত্র কল্যাণ) কার্যালয়ের ছাত্র কল্যাণ কমিটির আয়োজনে অনুষ্ঠানে খুলনা-৩ আসনের সংসদ সদস্য বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, কুয়েটের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আবদুল জলিল, পরিচালক (ছাত্র কল্যাণ) প্রফেসর ড. সোবহান মিয়াসহ রাজনীতিবীদ, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, প্রাক্তন শিক্ষার্থীগণ এবং সংশ্লিষ্ট বিভাগসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কুয়েট শাখার সভাপতি ও ছাত্র কল্যাণ কমিটির আহŸায়ক মোঃ আবুল হাসান শোভন।

No comments

Powered by Blogger.