প্রিয় ক্যাম্পাসে ড. জাফর ইকবাল


১১ দিন পর প্রিয় ক্যাম্পাসে পা রাখলেন ড. জাফর ইকবাল। বুধবার দুপুরে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে তাঁর বাসভবনে পৌঁছান জনপ্রিয় এ লেখক। এর আগে, সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে পৌঁছালে ড. ইকবালকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান তাঁর শিক্ষার্থী, ভক্ত ও অনুরাগীরা।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় চিকিৎসা শেষে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে ড. ইকবালকে। ১১টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেন তিনি। বলেন, আমি কখনো ভয় পাই না, ভয় পাচ্ছিও না। মুক্ত মঞ্চে দাঁড়িয়ে ছাত্রদের সাথে কথা বলবো।

জাফর ইকবাল বলেন, প্রগতির দিকে এগিয়ে যাওয়ার পথে এ ধরনের হামলা কখনো বাধা হতে পারবে না। দেশকে এমনভাবে গড়ে তুলতে হবে, যেন এ ধরনের জঙ্গিশক্তি গড়ে উঠতে না পারে। কারও মানসিকতাও যেন এমনভাবে গড়ে না ওঠে।

হামলার ঘটনায় ক্ষোভ আছে কি না জানত চাইলে জাফর ইকবাল বলেন, কারও প্রতি তাঁর কোনো রাগ নেই। বরং তাদের (হামলাকারী) প্রতি একধরনের দুঃখ আছে।

জাফর ইকবাল বলেন, ‘এই দেশটা এত সুইট, এত কিউট, এখানে অনেক কিছু করার আছে। তারা (বিপথগামীরা) যেন সেই কাজ করে। তা না করে তারা যা করছে, তা নিয়ে তাদের ওপর আমার একধরনের দুঃখবোধ আছে।’

হামলার ঘটনার ভয় পাচ্ছেন কি না—প্রশ্ন করা হলে জাফর ইকবাল বলেন, ‘আমি বোকাসোকা মানুষ, আমার ভয়টয় নেই। প্রধানমন্ত্রী, আশপাশের মানুষ, আমার ছাত্ররা, সহকর্মীরা, আত্মীয়-পরিজনেরা আছেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তো আছেই। এরপর আর অনিরাপদ বোধ করার কোনো কারণ দেখি না।’

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় লেখালেখির প্রসঙ্গ টানলে জাফর ইকবাল ডান হাত উঁচু করে দেখান। বলেন, বাঁ হাতে আঘাত পেয়েছেন। ডান হাত ঠিক আছে। তাই লিখতে পারছেন।

এখন সুস্থ আছেন জানিয়ে সাংবাদিকদের জাফর ইকবাল বলেন, ‘ভালো আছি। চিকিৎসকেরা বলেছেন, রোগী হিসেবে আমি ভালো। তাঁদের সব কথা শুনেছি।’

মাথায় থাকা ক্যাপ দেখিয়ে জাফর ইকবাল বলেন, তাঁর মাথায় চারটি আঘাত আছে।

তরুণ ভক্তদের উদ্দেশে জাফর ইকবাল বলেন, ‘আমাদের দেশটা খুবই ভালো। খুবই সুন্দর। খুবই সুইট। তোমরা দেশকে ভালোবাসো। দেশও তোমাদের ভালোবাসবে।’

গত ৩ মার্চ বিকালে শাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে হামলার শিকার হন ড. জাফর ইকবাল। সেদিন থেকেই ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।



No comments

Powered by Blogger.