অধ্যাপক জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদে কুয়েটে মানববন্ধন


শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রগতিশীল বুদ্দিজীবী অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের উপর দূর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদে ও হামলাকারিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে ০৫ মার্চ সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্বার বাংলা চত্ত¡রে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 

কুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. সোবহান মিয়া এর সভাপতিত্বে মানববন্ধন চলাকালে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর। তিনি বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, লেখক, বুদ্ধিজীবী প্রফেসর ড. জাফর ইকবাল এর উপর হামলার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করে বলেন, হামলার মত ন্যাক্কারজনক ঘটনায় কুয়েট পরিবার খুবই উদ্বিগ্ন। বিশ্ববিদ্যালয়ের মত একটি জ্ঞান ও গবেষনার স্থানে এ ধরনের ঘটনা কোন ভাবেই কাম্য নয়। তিঁনি হামলাকারীদের দ্রæত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং এধরনের ঘটনা যাতে আর না ঘটে সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলকে সতর্ক থাকার দাবি করেন।

এসময় শিক্ষকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মিহির রঞ্জন হালদার, পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. শিবেন্দ্র শেখর শিকদার, আইএম বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. আজিজুর রহমান, রোকেয়া হলের প্রভোস্ট (ভারপ্রাপ্ত) মনিকা গোপ প্রমুখ। 

বক্তারা বলেন, অধ্যাপক জাফর ইকবালের উপর হামলা, কোন নিছক হামলার ঘটনা নয়। এর নেপথ্য শক্তিকে খুঁজে বের করতে হবে। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। এখনও মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত মৌলবাদী শক্তি যে তৎপর তারা বুদ্ধিজীবীদের কন্ঠ রোধ করতে চায়, মুক্তচিন্তা, প্রগতি থামাতে চায়, মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের বিরুদ্ধে তৎপরতা চালায় এ হামলা তা প্রমাণ করে। মৌলবাদিরা আমাদের চেতনার মূলে আঘাত করতে চায়, চেতনাকে হত্যা করতে চায়। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তি ঔক্যবদ্ধ হয়ে এই অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে। রাজনৈতিকভাবে কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়ে মৌলবাদী শক্তির মুলোৎপাটন করতে হবে।


No comments

Powered by Blogger.