বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে - আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র আয়োজিত স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভায় কেন্দ্রের চেয়ারম্যান


চট্টগ্রাম প্রকৌশল-প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়র উপাচার্য ও আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেছেন- জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন। সে স্বপ্ন তিনি বাস্তবায়ন করে গেছেন। বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তোলার। সে লক্ষ্য অর্জনে তিনি কাজ করেছেন। তাই বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে। মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ২৬ মার্চ সকালে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্র আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি একথা বলেন। 

তিনি আরো বলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নির্ধারণ করে সব কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। সরকারের রূপকল্প ২০২১ এর মধ্যে মধ্য আয়ের দেশ ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ উত্তরণের লক্ষ্যে নির্ধারণ করা হয়েছে। 

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের চলমান অগ্রগতি যেন থেমে না যায়। সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন, প্রকৌশলীদের মেধা বৈষয়িক কোন লাভালাভের নিকট জলাঞ্চলি না দিয়ে স্বাধীনতাকে অর্থবহ করে তুলতে দেশের উন্নয়নে নিয়োজিত করার আহবান জানান। 

আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের ভাইস চেয়ারম্যান (একাডেমিক) ও চট্টগ্রাম বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন। 

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের ভাইস চেয়ারম্যান (এডমিন) প্রকৌশলী প্রবীর কুমার দে। আরো বক্তব্য রাখেন আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এ এ এম জিয়া হোসাইন, প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো: হারুন, প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরী, প্রাক্তন ভাইস-চেয়ারম্যান প্রকৌশলী এম.এ. রশীদ ও প্রকৌশলী উদয় শেখর দত্ত প্রমুখ। 

আলোচনা সভার শুরুতেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান কেন্দ্রের নেতৃবৃন্দ। 

মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহনে চিত্রাংকন, রচনা প্রতিযোগিতা এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানের ৭ই মার্চের ভাষণের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। 

কর্মসূচির মধ্যে বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত করে কবিতা আবৃত্তি করেন প্রকৌশলী সাদেক মোহাম্মদ চৌধুরী, প্রদীপ বড়–য়া, পরিমল চন্দ্র পাল, মাঈনুদ্দিন জুয়েল, প্রকৌশলী বিধান চন্দ্র দাশ। একক সঙ্গীত পরিবেশন করেন বেতার ও টেলিভিশন শিল্পী শাকিলা জাহান, জয়ন্তী দাশ, সামিনা ইসলাম, নিশা চক্রবর্ত্তী, রিপা দাশগুপ্তা, মেমোরী দাশ, আদ্রিকা দাশ গুপ্তা, প্রকৌশলী সিদ্দিক হোসেন মামুন, আনন্দ চক্রবর্ত্তী। 

নৃত্য পরিবেশন করেন আখি মহাজন, শুভার্থী সেন গুপ্তা ও বুনন দাশ। আলোচনা সভা শেষে শিশু কিশোর চিত্রাংকন, রচনা প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানের ৭ই মার্চের ভাষণের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন আইইবি, চট্টগ্রাম কেন্দ্রের চেয়ারম্যান ও আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ। 

এছাড়াও সকালে কেন্দ্রের এবাদতখানায় মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে খতমে কোরান ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। 

No comments

Powered by Blogger.