নড়াইলে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা দর্শনার্থীদের মাঝে সাড়া জাগিয়েছে


জেলায় তিন দিনব্যাপী জমজমাট ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা দর্শনার্থীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। দর্শনার্থীরা মেলায় স্থাপিত বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখার পাশাপাশি অনলাইনে পাসপোর্টের আবেদন পূরণসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাজও সম্পন্ন করেছেন। পাশাপাশি বিভিন্ন দপ্তরের ডিজিটাল সেবা সম্পর্কে তারা অবগত হয়েছেন।

ডিজিটাল সেবায় অবদান রাখায় ক্যাটাগরি ভিত্তিক বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে পুরষ্কৃত করা হয়। নিজস্ব বিনিয়োগ, নারী উদ্যোক্তা, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও আয় বৃদ্ধির সফলতায় শ্রেষ্ঠ ডিজিটাল সেন্টার হিসেবে মাইজপাড়া ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার ও সিঙ্গাশোলপুর ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার, মাল্টিমিডিয়া ক্লাস প্রদর্শনে শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে এপিবিএসএল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও পিবিএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়, প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধিতে শ্রেষ্ঠ দক্ষতা উন্নয়নমূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নারীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে শ্রেষ্ঠ কর্মসংস্থান সৃষ্টিকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়, ক্লিন নড়াইল গ্রীন নড়াইল বায়োগ্যাস প্লান্ট বাস্তবায়নে শ্রেষ্ঠ নাগরিক সেবায় উদ্ভাবন বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে নড়াইল জেলা প্রশাসন ও নড়াইল পৌরসভা, সর্বাধিক ই-সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালমা সেলিম, ডিজিটাল ভোটিং-এ শ্রেষ্ঠ তরুণ উদ্ভাবক হিসেবে নড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র সাদাত রহমান সাকিব ও সাদমান হাফিজ, অনলাইনে পাসপোর্টের আবেদন গ্রহণ করে মেলার শ্রেষ্ঠ সেবা প্রদানকারী ষ্টল হিসেবে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, নড়াইল, ই-সেবা স্মার্ট কার্ড বিতরণে শ্রেষ্ঠ ই-সেবা প্রদানকারী দপ্তর হিসেবে সদর উপজেলা ও জেলা নির্বাচন অফিস,ওয়েব পোর্টাল হালনাগাদে উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ পোর্টালের দপ্তর হিসেবে লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় এবং জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ পোর্টালের দপ্তর হিসেবে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়কে শ্রেষ্ঠ হিসেবে পুরষ্কৃত করা হয়।

তিনদিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার সমাপনী দিন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রধান অতিথি হিসেবে পুরষ্কার বিতরণ করেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মো. লোকমান হোসেন মিয়া। জেলা প্রশাসক মো. এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মো: সিদ্দিকুর রহমান,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. কামরুল আরিফ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারণ সম্পাদক নিজামুদ্দিন খান নিলু, নড়াইল পৌরসভার মেয়র মো. জাহাঙ্গীর বিশ্বাস।

মেলায় ৫টি প্যাভিলিয়নের মাধ্যমে ডিজিটাল পদ্ধতিতে বিজ্ঞান ও উদ্ভাবন বিষয়ক সেমিনার, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের গল্প, কুইজ, বুদ্ধিভিত্তিক পরীক্ষা, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, গনিত অলিম্পিয়াড ও সমস্যা সমাধানে আইডিয়া শেয়ারিং করা হয়। মেলায় মোট ৪৪টি স্টল বসে।

রোববার জেলা প্রশাসানের উদ্যোগে জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে অনুষ্ঠিত এ মেলা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) ও একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার। 


 (বাসস) 


No comments

Powered by Blogger.