মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের দেশের কল্যাণে কাজ করতে হবে


চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ এম এ সালাম বলেছেন মাদ্রাসা শির্ক্ষাথীদের লেখাপড়া করে সুশিক্ষিত হয়ে দেশের কল্যাণে কাজ করতে হবে। সামাজ ও দেশের উন্নয়নে ভুমিকা রাখতে হবে। তাহলে তারা মানুষের মত মানুষ হিসেবে গণ্য হবে। তিনি বলেন, সবাই তো মানুষ। কিন্তু কিছু মানুষ কে আমরা অমানুষ বলি, তবে কেন? কারণ একটাই, তারা মানুষ হয়েও অমানুষের মত আচরণ করে থাকে। এজন্য দরকার প্রকৃত আদর্শ শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের  গড়ে তোলা। লেখাপড়ার পাশাপাশি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে অংশ গ্রহনে উদ্বুদ্ধ করা এবং  পাশাপাশি চারিত্রিক ও নৈতিক শিক্ষায় ছাত্র-ছাত্রীদেরকে গড়ে তুলতে হবে।

এক সময় এ দেশের মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা ছিল একমুখি। তখন শুধু তারা ধর্মীয় জ্ঞান অর্জন করে মসজিদ মাদ্রাসার ভুমিকায় সীমাবদ্ধ থাকতো। বর্তমান সরকার মাদ্রাসা শিক্ষাকে এগিয়ে নিয়ে যুগোপযোগী করেছে। এখন মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা তথ্য প্রযুক্তিসহ বহুমুখি শিক্ষা অর্জন করছে। তারা সর্বদিকে দক্ষতা অর্জন করে  উচ্চ পর্যায়ে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছে। 

 তিনি  গতকাল ২২  ফেব্রæয়ারী বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রামের হাটহাজারীর বুড়িশ্চর জিয়াউল উলুম ফাযিল মাদ্রাসার ২ দিনব্যাপি বার্ষিক সভা ও অধ্যক্ষ আল্লামা জাফর আহমদ সিদ্দিকী (রহ:)’র ২৪ তম বেছাল শরীফ এবং শহীদ ফারুক মাহমুদ সিদ্দিকী ও হাজী মোহাম্মদ সোলাইমান খান এর ১৫ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালনসহ প্রতিষ্ঠানের মরহুমীন-মরহুমাত সকল দাতা-প্রতিষ্ঠাতা-শুভাকাংখীদের ইছালে ছাওয়াব উপলক্ষে আয়োজিত ২দিন ব্যাপী অনুষ্ঠানমালার ১ম দিন পুরষ্কার বিতরণী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।  

মাদ্রাসাটির গভর্নিং বডির সভাপতি চট্টগ্রাম জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ দেলওয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদরাসার অধ্যক্ষ আলহাজ আল্লামা এস.এম. ফরিদ উদ্দিন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ দেলওয়ার হোসেন তাঁর সভাপতির বক্তব্যে বলেন, এ সরকার মাদরাসা শিক্ষার ক্ষেত্রে অনেক আন্তরিক। সরকার মাদ্রাসার শিক্ষার উন্নয়নে যা যা করনীয় সব কিছু করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের আরও দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলতে শিক্ষকদের আন্তরিক হতে হবে। 

সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিসেস আক্তার উন নেছা শিউলি, চট্টগ্রাম রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির নির্বাহী সদস্য বেদারুল আলম বেদার, আলহাজ্ব হোছাইন মুনিরী, আলহাজ শেখ মোহাম্মদ ইউসুফ, আলহাজ্ব আব্দুল হামিদ, আলহাজ মোহাম্মদ আইয়ুব খান, আলহাজ জাহেদ আলম, মো. সাইফুদ্দিন সওদাগর, লোকমান হাকিম মেম্বার, মোহাম্মদ এনামুল হক, মাওলানা ওবাইদুল হক বুড়িশ্চরী, আলহাজ আহসানুল হক চৌধুরী, প্রমূখ। 

মওলানা মোরশেদুল কাদেরী ও মোহাম্মদ রুহুল কাদের চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ মওলানা সৈয়দ মোহাম্মদ নুরুল আমিন,মওলানা আ, ন, ম মনজুর হায়দার সিদ্দিকী, অধ্যাপক মনজুরুল কাদের, মওলানা জমির হোছাইন কাদেরী, ইলিয়াছ মোহাম্মদ শোয়াইব, মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, আতিকুল্লাহ চৌধুরী। 

পরিশেষে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হতে পুরষ্কার তুলে দেন সভাপতি, প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দরা সর্বশেষে স্থিরচিত্র ও ইসলামী ক্যালোগ্রাফী প্রদর্শনী ও দেয়ালিকা ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন।

No comments

Powered by Blogger.