স্কুলের ৫ বছর ব্যাখ্যা করা সম্ভব নয়, তবে কিছু বেপার না বললেই নয়


1. স্কুলে টিফিন টাইমে মাঠে খেলার পর ঘামে ভেজা শার্ট নিয়ে বাকি ৩ টা ক্লাস করা! ১ রুমে ৭০-৮০ জনের বেশি... এক বেঞ্চে ৪-৫ জন গাদাগাদি করে বসতাম! এক জনের ঘাম আরেক জনের গায়ে নেহাত লেগে যেত

2. পিটির সময় জান্নু স্যার (ওরফে জানে আলম) এর বাশি আর গরু চরানর মত আর আনিস স্যার ক্লাসে ক্লাসে গিয়ে দেখত কেউ পিটি না গিয়ে লুকিয়ে আছে কিনা! অনেকে স্যার দের ভয়তে বেঞ্চ এর নিচে, বাথরুমে লুকাত তবুও স্যার খুজে তাদের বের করতেন।

3. টিফিন টাইমে প্যাটিস খাওয়ার জন্য কত ঠেসাঠেসি না করতে হত। ১ থকে ৩ তালা পর্যন্ত বড় ছোট ভাইরা আড্ডা দিত।

4. আমাদের তৎকালিন প্রধান শিক্ষক সুকান্ত বিশ্বাস এর Narration পড়ানোর কথা হয়তো সবারই মনে আছে।

5. ক্লাসের সময় যখন মেয়ে-ছেলে এক সময় স্কুলে প্রবেশ করত! তখন ৮-৯-১০ ভাইরা খুব করে আপু দের দেখত! শার্ট এর কলার উঠিয়ে আর হাতা ভাজ করে সেই সাথে চুলে স্পাইক করে কত না আপুদের attention পাবার চেষ্টা

6. ছুটির ঘন্টা পরলে ১-৫ এর বাচ্চারা যে কে আগে স্কুল থেকে বের হবে এই প্রতিযোগিতা যেন প্রতিদিনের রুটিন ছিল।

7. আর senior - junior দের ক্রিকেট ম্যাচ তো মাসে একটা থাকছেই। কিন্তু শর্ত হলো জান্নু স্যার হবেন আম্প্যায়ার।

8. আর শিলু ম্যাডাম যে কত ছেলের প্রথম ক্রাশ ছিল তা বলার নেই। 

9. টিফিন টাইমে ফিরে ঘামে ভেজা shirt নিয়ে বাকি ৩ টা ক্লাস আর ছুটি হলে শুকনো shirt নিয়ে ক্লাস থেকে বের হওয়া।

10. বোতল দিয়ে ফুটবল আর মাঠে বম্বাস্টিং খেলা

আর কত কিছু মিল পাওয়া যাবে সবার মধ্যে। স্কুল লাইফ এমন এক সময় যেখানে সহজেই সবাইকে বিশ্বাস করে বন্ধু বানান যায় তা আর কলেজ, ভার্সিটি তে সম্ভব নয় :-) 

N.B - ভুলত্রুটি ক্ষমার চোখে দেখবেন 


Samiul Alam
Samiul Alam's profile photo
samiulalam1500@gmail.com



No comments

Powered by Blogger.