কমিউনিটি রেডিওকে বানিজ্যিক বিজ্ঞাপন প্রচারের অনুমতি দিল সরকার


 দেশের সকল কমিউনিটি রেডিওকে বানিজ্যিক বিজ্ঞাপন প্রচারের অনুমতি দিয়েছে সরকার। একই সাথে কমিউনিটি রেডিওগুলোর প্রচার এলাকার সীমানা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

সরকার কর্তৃক জারীকৃত “কমিউনিটি রেডিও স্থাপন, সম্প্রচার ও পরিচালনা নীতিমালা ২০১৭” প্রজ্ঞাপন হতে এই তথ্য জানা গেছে। সরকারের পক্ষ থেকে ৮ ফের্রুয়ারী এই প্রজ্ঞাপন জারী করা হয়েছে।

এই প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে জারীকৃত নীতিমালার ৪.১.১২ অনুচ্ছেদের বলা হয়েছে, চুড়ান্তভাবে লাইসেন্স পাওয়ার পর একটি প্রতিষ্ঠান কিংবা সংস্থা সরকারের অনুমোদনক্রমে ভিন্ন ভিন্ন ভৌগলিক এলাকায় সর্বমোট তিনটি কমিউনিটি রেডিও স্টেশন স্থাপন ও পরিচালনা করতে পারেব।

এই নীতিমালার ৭.১ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, প্রাতিষ্ঠানিক ব্যয় নির্বাহের জন্য প্রতিটি কমিউনিটি রেডিও স্টেশন দৈনিক মোট প্রচার সময়ের শতকরা ১০ ভাগ সময় বানিজ্যিক বিজ্ঞাপন প্রচার করতে পারবে।

এছাড়া নতুন এই নীতিমালার ৫.১ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে প্রতিটি কমিউনিটি রেডিও’র সম্প্রচার এলাকার ব্যপ্তি হবে স্টেশনের অবস্থান থেকে চতুর্দিকে ২৫ কিলোমিটার।

নীতিমালার ১৫ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, “কমিউনিটি রেডিও স্থাপন, সম্প্রচার ও পরিচালনা নীতিমালা ২০১৭”এর প্রজ্ঞাপন জারীর পর “কমিউনিটি রেডিও স্থাপন, সম্প্রচার ও পরিচালনা নীতিমালা ২০০৮” বাতিল বলে গন্য হবে। এছাড়া জাতীয় সম্প্রচার আইন প্রণীত হওয়ার পর উক্ত আইনের বিধান অনুসরণ করে কমিউনিটি রেডিওগুলো প্রচারিত ও পরিচালিত হবে।

উল্লেখ্য, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাক্রমে “কমিউনিটি রেডিও স্থাপন, সম্প্রচার ও পরিচালনা নীতিমালা ২০০৮” প্রণীত হয় এবং এই নীতিমালার আওতায় ২০১০ সালে দেশে প্রথমবারের মত কমিউনিটি রেডিও স্থাপন ও পরিচালনার অনুমতি দেয়া হয়। কিন্তু নীতিমালায় বানিজ্যিক বিজ্ঞাপন প্রচারসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সীমাবন্ধতা ছিল। এরফলে এই নীতিমালা সংশোধনের জন্য গত পাঁচ বছরের বেশী সময় ধরে বিএনএনআরসি ও কমিউনিটি রেডিওগুলো সরকারের নিকট দাবী জানিয়ে আসছিল।

“কমিউনিটি রেডিও স্থাপন, সম্প্রচার ও পরিচালনা নীতিমালা ২০১৭” প্রজ্ঞাপন জারী করায় বিএনএনআরসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ. এইচ. এম বজলুর রহমান সকল কমিউনিটি রেডিও স্টেশনের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী, তথ্য প্রতিমন্ত্রী, তথ্যসচিবসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.