১২ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ হচ্ছে


শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না করায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এর মধ্যে বেসরকারি ৩২টি বিশ্ববিদ্যালয়কে শোকজ করা হচ্ছে। বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে ১২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কার্যক্রম। তবে এতে শিক্ষার্থীদের যাতে কোন ক্ষতি না হয়, সে বিষয়টিও মাথায় রাখা হচ্ছে। নিয়ম অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়গুলো স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণে কোনো ধরনের উদ্যোগ না নেয়ায় এমন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। 

রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে উচ্চপর্যায়ের এক বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, বর্তমানে বাংলাদেশ ৫১টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে ১৯টি স্থায়ী ক্যাম্পাসে কার্যক্রম শুরু করেছে। বাকি ৩২টির মধ্যে ১২টি ন্যূনতম কোনো উদ্যোগ নেয়নি। ওই ১২ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রী ভর্তি বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে। তবে এর আগে তাদের কাছ থেকে ব্যাখা চাওয়া হবে। কেন তারা (কর্তৃপক্ষ) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা ও আইনের বিধান কেন প্রতিপালন করেনি তার কারণ ব্যাখ্যা চাওয়া হবে বলে জানা গেছে।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত মানায় কঠোর ব্যবস্থা নিতে হচ্ছে। আমরা এমন সিদ্ধান্তের জন্য ভর্তি হওয়া ছাত্রছাত্রীদের কোনো ক্ষতি বা সমস্যায় ফেলতে চাই না। তারা তাদের শিক্ষাজীবন অব্যাহত রাখবে। ভর্তি হওয়া বিশ্ববিদ্যালয়েই তারা লেখাপড়া করতে পারবে।

সচিব আরও বলেন, শুধু ১২টি বিশ্ববিদ্যালয় নয়, স্থায়ী ক্যাম্পাসে না যাওয়া, বার্ষিক নিরীক্ষা প্রতিবেদন না নেয়া বা আইন লঙ্ঘন করা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কাছেও ব্যাখা চাওয়া হবে। তারা যদি সন্তোষজনক জবাব দিতে না পারে, তাহলে আইন অনুযায়ী এবং ইতিপূর্বে মন্ত্রণালয় ও ইউজিসি থেকে পাঠানো পত্রে নির্দেশনা মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, গত বছর জানুয়ারিতে আলটিমেটাম দেয়া ৩৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে মাত্র ৭টি স্থায়ী ক্যাম্পাসে গেছে। বাকিগুলোর কোনোটি জমি কিনেছে আবার কোনোটি আংশিক কার্যক্রম শুরু করেছে স্থায়ী ক্যাম্পাসে। আবার এমন বিশ্ববিদ্যালয় আছে যেগুলো স্থায়ী ক্যাম্পাসে যাওয়ার কথা বললেও ভাড়াবাড়িতেই কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১০ সাল থেকে এসব বিশ্ববিদ্যালয়কে এখন পর্যন্ত ছয়বার আলটিমেটাম দেয়া হয়েছে। এর আগে ২০১২, ২০১৪, ২০১৫ এবং ২০১৬ সালেও আলটিমেটাম দেয়া হয়। কিন্তু আলটিমেটাম শেষ হলেও বেশ কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের টনক নড়ছে না। তাই অন্তত ১২ টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কার্যক্রম বন্ধের সিদ্ধান্ত আসছে। তবে এতে শিক্ষার্থীদের কোন ক্ষতি যাতে না হয় সে বিষয়টি নজরে আনা হবে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।


No comments

Powered by Blogger.