রোবোটিক্স, বিগ ডেটাসহ তথ্যপ্রযুক্তিখাতে চার হাজার বিশেষজ্ঞ তৈরিতে কাজ করছে সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ


২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচন, সুশাসন ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, রোবোটিক্স, বিগ ডেটাসহ তথ্যপ্রযুক্তিখাতে চার হাজার বিশেষজ্ঞ তৈরিতে কাজ করছে সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ।

শুক্রবার ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭ মেলার তৃতীয় দিনে ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য ই-গভর্নমেন্ট মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা বলেন তিনি।

পলক বলেন, ভিশন ২০২১ বাস্তবায়নের জন্য ই-গভর্নমেন্ট মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন এবং ই-গভর্নমেন্ট বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ৫টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় চিহ্নিত করে সেগুলোর সম্ভাব্যতা যাচাই সম্পন্ন হয়েছে। সরকারের ৫২টি মন্ত্রণালয় বা বিভাগ, ৬৮টি অধিদফতর এবং সংস্থাসমূহকে বাংলাদেশ ন্যাশনাল এন্টারপ্রাইজ আর্কিটেকচার ফ্রেমওয়ার্ক এর আওতায় আনার প্লান করা হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য ই-গভর্নমেন্ট মাস্টার প্ল্যান প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করার জন্য ডিজিটাল মিউনিসিপালিটি সার্ভিসেস সিস্টেম নামে একটি পাইলট প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যার মধ্যে ১০টি পৌরসভাকে প্রাথমিকভাবে অনলাইনে হোল্ডিং ট্যাক্স, পানির বিল, কাউন্সিলরের প্রশংসাপত্র, স্বয়ংক্রিয় সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণ ও ই-ট্রেড লাইসেন্স সেবা থাকবে যা আগামীতে সারাদেশের সমস্ত পৌরসভাগুলোতে চালু করার পরিকল্পনা আছে। 

জাতিসংঘের ই-গভর্নমেন্ট সার্ভে ২০১৬ রিপোর্ট অনুযায়ী আইসিটিতে ১৯৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ১২৪ তম স্থানে অবস্থান করছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত অন সিওং ডু। সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলে নির্বাহী পরিচালক স্বপন কুমার সরকার।

No comments

Powered by Blogger.